সংবাদ শিরোনাম
DSE

প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সে উদ্বোধন করলেন খুলনার উন্নয়ন মেলা

khulna

এম এ আজিম (খুলনা ব্যুরো):
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সোমবার বিকেল ৩টায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে খুলনা উন্নয়ন মেলা-২০১৭’র উদ্বোধন করেন। এরই সাথে দেশের প্রতিটি জেলা এবং উপজেলার মেলাও উদ্বোধন করা হয়। এসময় প্রধানমন্ত্রী মেলায় উপস্থিত বিভিন্ন পেশার প্রতিনিধির সাথে সরাসরি মতবিনিময় করেন। এর মাধ্যমে তিনি খুলনায় অনুষ্ঠিত এ মেলায় ডিজিটাল পদ্ধতিতে সরাসরি যোগাযোগের মাধ্যমে জনগণের সাথে সেতুবন্ধনের অনন্য নজির স্থাপন করলেন। এ সময় খুলনার একজন ভিক্ষুকের সাথে প্রধানমন্ত্রী কথা বলেন। যিনি জেলা প্রশাসনের দেয়া সেলাই মেশিন প্রাপ্ত হয়ে বর্তমানে স্বাবলম্বী হয়েছেন। একজন কৃষকের কাছে প্রধানমন্ত্রী তার কৃষি বিষয়ক উদ্যোগের বিষয় জানতে চাইলে তিনি বলেন, কৃষি বিভাগের প্রশিক্ষণলব্ধ জ্ঞান কাজে লাগিয়ে তিনি নতুন নতুন প্রযুক্তির প্রয়োগে আশাতীত স্বাফল্য অর্জন করেছেন। ভিডিও কনফারেন্সে খুলনা বিভাগীয় কমিশনার মোঃ আবদুস সামাদ প্রধানমন্ত্রীকে খুলনার উন্নয়নের বহুমূখী কার্যক্রমের মধ্যে উল্লেখযোগ্য বিষয়গুলো অবহিত। বিশেষ করে খুলনাকে ভিক্ষুকমুক্ত করার উদ্যোগ এবং কৃষি, স্বাস্থ্য, শিক্ষায় খুলনা অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে বলেও জানান তিনি। এছাড়া সাতক্ষীরা ও চুয়াডাঙ্গায় বিগত বছরে কীটনাশকমুক্ত আম উৎপাদন করার বিষয়টিও প্রধানমন্ত্রীকে জানানো হয়। অনুষ্ঠানে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ, সংসদ সদস্য মুহাম্মদ মিজানুর রহমান, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোঃ আতিকুল ইসলাম, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশিদ, জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসান, খুলনা রেঞ্জ ডিআইজি এসএম মনির উজ জামান, পুলিশ কমিশনার নিবাস চন্দ্র মাঝি, পুলিশ সুপার মোঃ নিজামুল হক মোল¬্যাসহ বিভাগীয় ও জেলা পর্যায়ের উর্ধতন কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি এবং মিডিয়া কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। এর আগে উন্নয়ন মেলা উপলক্ষে সকাল ১০টায় নগরীতে বর্নাঢ্য শোভাযাত্রার আয়োজন করা হয়। নগরীর শিববাড়ি মোড় থেকে শোভাযাত্রাটি শুরু হয়ে শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে সার্কিট হাউজ মেলা প্রাঙ্গণে শেষ হয়। এদিকে, সার্কিট হাউজ মাঠের মেলায় ১০৮টি স্টলের মাধ্যমে বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি দপ্তরের বিগত ৮ বছরে সরকারের গৃহীত বহুমুখী উন্নয়ন কার্যক্রম তুলে ধরা হচ্ছে। এছাড়া মেলায় প্রতিদিন সেমিনার, লোক সংগীত ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন রয়েছে। ভিডিও চিত্রে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ভিত্তিক চলচ্চিত্র প্রদর্শন ছাড়াও বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রমের প্রদর্শনী থাকবে। এতে জাতীয় উন্নয়নের পাশাপাশি খুলনার উন্নয়নের অগ্রগতি তুলে ধরা হচ্ছে। এসডিজি, প্রধানমন্ত্রীর ১০টি বিশেষ উদ্যোগ, তথ্য-প্রযুক্তির ব্যবহার, পরিবেশ সংরক্ষণ, নারীর ক্ষমতায়ন প্রভৃতি বিষয়ে সেমিনার এবং স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য এ সকল বিষয়ে কুইজ ও রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজনও রয়েছে।