সংবাদ শিরোনাম
DSE

শপথ নিলেন ৫৯ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান

jela

জেলা পরিষদ নির্বাচেনে বিজয়ী ৫৯ চেয়ারম্যান শপথ নিয়েছেন। বুধবার (১১ জানুয়ারি) গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাদের শপথ বাক্য পাঠ করান।খবর বাসস।

২০০০ সালে আইন পাস হওয়ার ১৬ বছর পর গত ২৮ ডিসেম্বর দেশে প্রথমবারের মতো জেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। অবশ্য আইনি জটিলতার কারণে ওইদিন কুষ্টিয়া ও বগুড়া জেলা পরিষদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়নি। এছাড়া আইনের পৃথক বিধান থাকায় ৩ পার্বত্য জেলা (বান্দরবান, রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি) এ নির্বাচনের আওতায় ছিল না।

জেলা পরিষদ নির্বাচনে জনগণের প্রত্যক্ষ ভোটাধিকার ছিল না। ইউনিয়ন, উপজেলা পরিষদের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরাই এ নির্বাচনে ভোটার ছিলেন।নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ছাড়া অন্য কোন রাজনৈতিক দল অংশ নেয়নি। তবে বিভিন্ন জেলায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসাবে অনেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। আবার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী না থাকায় অনেক জেলায় বিনা ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

শপথ অনুষ্ঠানে পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসাইন এবং সড়ক যোগাযোগ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এ সময় উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব আবদুল মালেক।
এছাড়া মন্ত্রী পরিষদের সদস্য, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টামণ্ডলির সদস্যসহ বিভিন্ন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে অংশ নেন।

শপথ গ্রহণ শেষে নির্বাচিত জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানদের সততা, নিষ্ঠা ও একাগ্রতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করার নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘আপনাদের লক্ষ্য হবে মানুষের সেবা করা।’

তিনি আরও বলেন, ‘আপনাদের নিজ নিজ জেলায় উন্নয়ন কাজ যথাযথভাবে হচ্ছে কিনা- সেদিকে খেয়াল রাখবেন। কী কী করতে আরও উন্নয়ন করা যায় সেদিকেও খেয়াল রাখবেন। আপনাদের অনেক কাজ। অনেক বাধা চড়াই উৎরাই পার হয়ে উন্নয়নের মহাসোপানে পা রেখেছে বাংলাদেশ। এটা যেন আর পেছনের দিকে না যায়।’

আগামী ১৮ জানুয়ারি ওসমানি স্মৃতি মিলনায়তনে জেলা পরিষদ নির্বাচনে নির্বাচিত সদস্যদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।