সংবাদ শিরোনাম
DSE

নিরাপদ ভ্রমণে বন্ধু ট্যুরিস্ট পুলিশ

tourist

গাজীপুরের রাজিয়া সুলতানা ও শহীদুল ইসলাম দম্পতি কক্সবাজার বেড়াতে গিয়ে বৃহস্পতিবার (১৬ নভেম্বর) রাতে সমুদ্র সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্টে ‘Samsung Galaxy J2’ মোবাইল ফোন সেটটি হারিয়ে ফেলেন। সৈকতের কিটকট ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীরের ছেলে মেহেদি হাসান মোবাইল ফোন সেটটি পেয়ে ট্যুরিস্ট পুলিশের সিনিয়র এএসপি রায়হান কাজেমিকে ফোন করে।

রায়হান কাজেমি মোবাইল ফোন সেটটি নিজের জিম্মায় নিয়ে কললিস্টের সূত্র ধরে মালিককে জানান। শুক্রবার (১৭ নভেম্বর) সকালে মোবাইল সেটটি তাদের হাতে তুলে দেন।

শীতের শুরু থেকেই দেশের বিভিন্ন পর্যটন স্পটগুলোতে পর্যটকরা বেড়াতে যাচ্ছেন। অনেক সময় কিছু হারিয়ে ফেলা অথবা ছিনতাইয়ের মতো অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটতে পারে। এমন পরিস্থিতিতে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগলেও আমরা অনেকেই জানি না, পর্যটকদের জন্য ২৪ ঘণ্টা সেবা দিতে কাজ করছে ট্যুরিস্ট পুলিশ।

এ বিষয়ে রায়হান কাজেমি বাংলানিউজকে বলেন, কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতসহ পুরো জেলাজুড়ে দেশি-বিদেশি-পর্যটকদের (নারী-পুরুষ) নিরাপত্তা দিতে ২৪ ঘণ্টা টহল দিচ্ছে ট্যুরিস্ট পুলিশ।

তিনি বলেন, শুধু জান-মালের নিরাপত্তাই নয়, পর্যটকদের নির্বিঘ্নে চলাফেরা ও শপিং করতে যেন কোনো ধরনের সমস্যা না হয়, এজন্য বিভিন্ন মার্কেট ও খাবারের হোটেলের পরিচ্ছন্নতার বিষয়টিও নিশ্চিত করা হচ্ছে।

সম্প্রতি কক্সবাজারে বেড়াতে এসে পাসপোর্ট হারিয়ে ফেলেন ফ্রান্সের নাগরিক জেসিকা। তিনি কোন হোটেলে ছিলেন তার নামও বলতে পারছিলেন না ট্যুরিস্ট পুলিশকে। পরে কলাতলি এলাকার সব হোটেলে যোগাযোগ করে ট্যুরিস্ট পুলিশ। এরপর জেসিকার হারানো পাসপোর্ট উদ্ধার করে তাকে ফিরিয়ে দেওয়া হয়। আর এভাবেই পর্যটকদের দিনরাত সেবা দিতে প্রস্তুত থাকে ট্যুরিস্ট পুলিশ।

এজন্য ভ্রমণের সুবিধার্থে সিলেট, বান্দরবান-কক্সবাজার দেশের যে প্রান্তেই ঘুরতে যাচ্ছেন বা যাবেন বলে ঠিক করেছেন ট্যুরিস্ট পুলিশের নম্বর সংগ্রহে রাখুন।

ট্যুরিস্ট পুলিশের সহায়তা নিতে এসব নম্বর ব্যবহার করতে পারেননিরাপদ ভ্রমণে ট্যুরিস্ট পুলিশের সহায়তা নিন।