সংবাদ শিরোনাম
DSE

পুঁজিবাজার উন্নয়ন মেলায় অংশগ্রহণ করবে

dse

বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে উন্নয়ন মেলার আয়োজন করেছে বাংলাদেশ সরকার। জেলা ও উপজেলায় গ্রহীত উন্নয়ন, উদ্যোগ গ্রহণ, বাস্তবায়ন এবং উন্নয়ন সম্পর্কিত তথ্য জনগণের কাছে তুলে ধারা হবে মেলায়।

আগামী ১১ থেকে ১৩ জানুয়ারি এ মেলা অনুষ্ঠিত হবে। সরকারের উন্নয়ন মেলায় পুঁজিবাজারের সকল স্টেকহোল্ডার অংশগ্রহণ করবে। বুধবার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) ঢাকা অফিসে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) মুখপাত্র সাইফুর রহমান এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘অর্থনীতির উন্নয়নে প্রযুক্তি’ প্রতিপাদ্য নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো মেলায় আমরা অংশগ্রহণ করব। এবারের মেলায় আটটি বিভাগীয় শহরসহ ৫ জেলায় মোট ১৩টি স্থানে অংশগ্রহণ করব।

সাইফুর রহমান বলেন, ভিন্ন ভিন্নভাবে মেলায় অংশগ্রহণ না করে পুঁজিবাজারের সকল স্টেকহোল্ডার এক সাথে মেলায় অংশগ্রহণ করে। আমরা ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট, রাজশাহী, রংপুর, খুলনা, ময়মনসিংহ, বরিশাল, নরসিংদী, কুমিল্লা, নোয়াখালী (চৌমুহনী), গাজীপুর ও নারায়ণগঞ্জে অংশগ্রহণ করব।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান, উন্নয়ন মেলায় পরিচালনা প্রধান প্রতিষ্ঠান হিসাবে ঢাকায় থাকবে সিডিবিএল, চট্টগ্রাম ও সিলেটে সিএসসি, রাজশাহী, বরিশাল ও খুলনায় আইসিবি, ময়মনসিংহে মশিউর সিকিউরিটিজ, নরসিংদীতে আমানত শাহ সিকিউরিটিজ, কুমিল্লা, নোয়াখালীতে (চৌমুহনী) ব্র্যাক ইপিএল সিকিউরিটিজ, গাজীপুরে আইডিএসি সিকিউরিটিজ, নারায়ণগঞ্জে লংকাবাংলা সিকিউরিটিজ ও রংপুরে মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট সিকিউরিটিজ থাকবে।

পুঁজিবাজারের উন্নয়নের কথা তুলে তিনি বলেন, ২০০৯ সালের পর পুঁজিবাজারে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। যা আপনারা (সংবাদিক) সবাই জানেন, কিন্তু প্রত্যন্ত অঞ্চলের সবাই তা জানে না। উন্নয়ন মেলায় দর্শনার্থীদের পুঁজিবাজারের বিভিন্ন সংস্কারের কথা জানানো হবে।

অনুষ্ঠানে সিডিবিএলের ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক শুভ্র কান্তি চৌধুরী বলেন, প্রান্তিক পর্যায়ের মানুষের মধ্যে অনেক ভুল ধারণা আছে। উন্নয়ন মেলায় পুঁজিবাজারে উন্নয়নের কথাগুলো তুলে ধরা হবে। এতে করে সবার ভুল ধারণা দূর হবে।

সংবাদ সম্মেলনে আইসিবি, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ, ডিএসই ব্রোকার অ্যাসোসিয়েশন, মার্চেন্ট ব্যাংক অ্যাসোসিয়েশনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।