নারী উদ্যোক্তা বেড়েছে, কিন্তু পরিবেশ কতটা অনুকূল হয়েছে

বিডিএফএন টোয়েন্টিফোর.কম

নারী উদ্যোক্তা হিসেবে ভিন্ন ধরনের প্রতিবন্ধকতার মুখে পড়তে হয় নারীদের।

বাংলাদেশে সরাসরি কিংবা অনলাইন- দু ধরণের ব্যবসাতেই নারী উদ্যোক্তার সংখ্যা অনেক বাড়লেও উদ্যোক্তারা বলছেন নারী হিসেবে ব্যবসা করা কিংবা ব্যবসা সম্প্রসারণ করার ক্ষেত্রে প্রতিনিয়ত বাধাও বাড়ছে।

দেশটিতে সম্প্রতি কর্তৃপক্ষ ই-কমার্সের ক্ষেত্রে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে নিবন্ধন বাধ্যতামূলক, গোয়েন্দা সংস্থা কর্তৃক নজরদারি এবং নিরাপত্তা আমানত রাখার সিদ্ধান্ত নতুন উদ্যোক্তাদের জন্য হয়রানির ক্ষেত্র বাড়িয়েছে বলেও মন্তব্য করেছেন কয়েকজন নারী উদ্যোক্তা।

তবে সরকারের দিক থেকে আগেই বলা হয়েছে যে ই কমার্সের ক্ষেত্রে মানুষকে প্রতারণার হাত থেকে রক্ষা করার পাশাপাশি প্রকৃত উদ্যোক্তাদের কাজের সুযোগ করে দিতেই এসব কার্যক্রম নেয়া হয়েছে।

বিশেষ করে ই-ভ্যালি, ই-অরেঞ্জসহ কিছু প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে গ্রাহকের অর্থ নিয়ে প্রতারণার অভিযোগ আসার পর কর্তৃপক্ষ এসব সিদ্ধান্ত নিয়েছিলো।

এর আগে চলতি বছর বাজেটে নারীরা মালিক এমন প্রতিষ্ঠানের বার্ষিক লেনদেন ৭০ লাখ টাকা পর্যন্ত করমুক্ত রাখার ঘোষণা দিয়েছে সরকার। পাশাপাশি ব্যাংক থেকেও ঋণ দেয়ার জন্যও বিশেষ প্রকল্প চলমান আছে।

তবে প্রযুক্তি খাতের উদ্যোক্তা আচিয়া খালেদা বলছেন, এসব সুবিধা কিংবা ঋণ এখন তাদের ভাগ্যেই জোটে যাদের সুপরিচিত বাবা বা স্বামী আছেন।

“মেয়েরা টেকনোলজি খাতে প্রতিষ্ঠান দাঁড় করাবে-এটা আগেও যেমন অনেকে মেনে নিতে পারতো না, এখনো অনেকের দৃষ্টিভঙ্গি তাই আছে। ব্যবসার সংশ্লিষ্ট কাজে অনেক সরকারি দফতরেও তাই নিজের কাজের জন্য পুরুষ কাউকে পাঠাতে হয়,” বলছিলেন তিনি।