বিইউপিতে চতুর্দশ বার্ষিক সিনেট সভা অনুষ্ঠিত

বিডিএফএন টোয়েন্টিফোর.কম

২০ জুন বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস (বিইউপি) এর চতুর্দশ বার্ষিক সিনেট সভা বিইউপির বিজয় অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন বিইউপির উপাচার্য ও সিনেট চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মোঃ মাহ্বুব-উল আলম, এনডিসি, এএফডব্লিউসি, পিএসসি, এমফিল, পিএইচডি।

সভায় সিনেট চেয়ারম্যান বৈশ্বিক প্রতিকূল পরিবেশের মধ্যেও বিশ্ববিদ্যালয়ের চলমান শিক্ষা, প্রশাসনিক, উন্নয়ন কার্যক্রমসমূহ সম্পর্কে অবহিত করেন। পরে বিইউপির ট্রেজারার এয়ার কমোডর মোঃ রেজা এমদাদ খান, বিইউপি, এনডিসি, পিএসসি, জিডি (পি) ২০২১-২০২২ অর্থবছরের সংশোধিত বাজেট ১২৩ কোটি ৯ লক্ষ টাকা ও ২০২২-২০২৩ অর্থবছরের ১১৪ কোটি ৯৫ লক্ষ টাকার বাজেট উপস্থাপন করেন। সিনেট সদস্যগণ ট্রেজারার এর বক্তৃতার ওপর আলোচনা করেন এবং সর্বসম্মতিক্রমে বাজেট প্রস্তাব অনুমোদন করেন। এছাড়াও সিনেট সভায় বিইউপির চতুর্দশ বার্ষিক প্রতিবেদন (জুলাই ২০২১-জুন ২০২২) পেশ করেন পাবলিক রিলেশন্স, ইনফরমেশন অ্যান্ড পাবলিকেশন্স (পিআরআইঅ্যান্ডপি) এর চিফ এয়ার কমোডর মোঃ মামুনুর রশীদ, বিইউপি, এনডিসি, এএফডব্লিউসি, পিএসসি, এমফিল, এডিডব্লিউসি। এয়ার কমোডর মামুন ৮টি ফ্যাকাল্টি ও সেন্টারের অধীনে ৪৯টি প্রোগ্রাম এবং অধিভুক্ত ৪৬টি প্রতিষ্ঠানের অধীনে ১৬২ ধরনের কোর্স কারিকুলাম মূল্যায়ন, পরিমার্জন এবং নবায়নের উপর ব্যাখ্যা করেন। এছাড়া শিক্ষার মান উন্নয়নে বিইউপি কর্তৃক গৃহীত গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপসমূহ সিনেট সদস্যদের উদ্দেশ্যে উপস্থাপন করেন। পরবর্তীতে সর্বসম্মতিক্রমে সিনেট সদস্যগণ উক্ত প্রতিবেদনটি অনুমোদন করেন। চতুর্দশ বার্ষিক সিনেট সভাটি সার্বিকভাবে সঞ্চালনা করেন বিইউপির রেজিস্ট্রার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আব্দুল্লাহ আল মামুন, এসপিপি, এনডিসি, পিএসসি, জি।

সিনেট সভায় সংসদ সদস্য মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম (বীর উত্তম), সংসদ সদস্য এইচ. এন আশিকুর রহমান, সংসদ সদস্য মুহাম্মদ ফারুক খান সংক্ষিপ্ত বক্তিতায় বিইউপির অগ্রযাত্রাকে মূল্যায়ন করেন এবং বিশ^বিদ্যালয়ের কার্যক্রমের উন্নয়নের উপর গুরুত্বপূর্ণ দিকনির্দেশনা প্রদান করেন। উল্লেখ্য যে, অফলাইন এবং অনলাইনে যুক্ত সম্মানিত সিনেট সদস্যগণ উক্ত সভায় তাঁদের মূল্যবান মতামত তুলে ধরেন।

সভায় বিইউপির ভিসি ও সিনেট চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মাহ্বুব তাঁর বক্তব্যে বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত ডিজিটাল বাংলাদেশের সফল বাস্তবায়নের নমুনা হিসেবে বৈশ্বিক মহামারি কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতেও বিইউপির সকল শিক্ষা ও প্রশাসনিক কার্যক্রম চলমান ছিল। তিনি আরও বলেন, নবীন বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে বিইউপির শিক্ষার্থীরা দেশ-বিদেশে ইতোমধ্যে সাফল্যের স্বাক্ষর রেখে চলেছে। এছাড়া ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সম্প্রসারণ কার্যক্রম চলমান রয়েছে বলে তিনি অবহিত করেন। মাননীয় সিনেট চেয়ারম্যান আরও উল্লেখ করেন যে, বিইউপির কাউন্সিলিং অ্যান্ড প্লেসমেন্ট সেন্টার (সিপিসি) এর মাধ্যমে নিয়মিতভাবে শিক্ষার্থীদের মনস্তাত্ত্বিক সমস্যা, শিক্ষাগত কর্মক্ষমতা, খাপ খাইয়ে চলা, ক্যারিয়ার কাউন্সিলিং, ইন্টার্নশিপ ব্যবস্থাপনা সেবা দিয়ে থাকে। তিনি বিইউপি শিক্ষাকার্যক্রমের মান উন্নয়নের মাধ্যমে বিইউপিকে আন্তর্জাতিক মানে উন্নীতকরণের জন্য গুরুত্বপূণ পদক্ষেপসমূহ অবহিত করেন। পরিশেষে শিক্ষা, নবীন উদ্যোক্তা এবং সহশিক্ষা কার্যক্রমে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বিশেষ সাফল্যের জন্য ২ জন শিক্ষক এবং ৬ জন প্রাক্তন এবং বর্তমান শিক্ষার্থীকে সিনেটের পক্ষ থেকে পুরস্কার প্রদান করা হয়।

সর্বশেষে চেয়ারম্যান সভায় উপস্থিত সকল সম্মানিত সদস্যকে ধন্যবাদ জানিয়ে বিইউপির চতুর্দশ বার্ষিক সিনেট সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।