আবারও ড্রাইভিং লাইসেন্স বিতরণ শুরু বিআরটিএর

দুই বছরের বেশি সময় বন্ধ থাকার পর অবশেষে আবারও ড্রাইভিং লাইসেন্স বিতরণের কাজ শুরু করছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)। আজ সোমবার ১১ অক্টোবর থেকে নতুন করে এ কার্যক্রম শুরু হচ্ছে।

তবে আজ সোমবার লাইসেন্স বিতরণের কাজ শুরু হলেও তা পেতে একজন চালককে আরও কয়েকদিন অপেক্ষা করতে হবে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

সংস্থাটির পরিচালক এবং মুখপাত্র শেখ মোহাম্মদ মাহবুব-ই-রব্বানী জানিয়েছেন, ইতোমধ্যে লাইসেন্স ছাপানোর কাজ শুরু হয়েছে।

তিনি আরও জানান, সেনাবাহিনীর অধীন মেশিন টুলস ফ্যাক্টরি (বিএমটিএফ) এ উদ্যোগ নিয়েছে। স্মার্টকার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাপার কাজ শুরুর ৬ মাসের মধ্যে আটকে থাকা ১২ লাখ ৪৫ হাজার ড্রাইভিং লাইসেন্স সরবরাহের কাজ শেষ করবে প্রতিষ্ঠানটি।

প্রায় দুই বছর ধরে লিখিত, এ কর্মসূচিতে প্রথমে আটকে থাকা ১২ লাখ ৪৫ হাজার ড্রাইভিং লাইসেন্স দেওয়া হবে। মৌখিক ও ব্যবহারিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েও ড্রাইভিং লাইসেন্স পাননি তারা।

গণমাধ্যমকে বিআরটিএর পরিচালক জানান, লাইসেন্স ছাপা হলে আবেদনকারী চালককে এসএমএস বা মোবাইল বার্তার মাধ্যমে সংগ্রহের তারিখ জানিয়ে দেওয়া হবে।

একই সঙ্গে প্রিন্ট হওয়া লাইসেন্স কার্ড প্যাকেজিং করে কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট জেলা সার্কেল অফিসে পাঠিয়ে দেওয়া হবে। যিনি যে অফিসে লাইসেন্সের জন্য আবেদন করেছেন তিনি সেই অফিস থেকে লাইসেন্স পাবেন। কিন্তু আজ সোমবার থেকেই লাইসেন্স হাতে পাচ্ছেন না কোনও আবেদনকারী।