নাভানা ফার্মার কাট-অব প্রাইস ৩৪ টাকা

প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে পুঁজিবাজারে আসতে যাওয়া নাভানা ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের কাট অব প্রাইস ৩৪ টাকা নির্ধারিত হয়েছে।

কোম্পানিটির ৪ জুলাই বিকেল ৫টা থেকে শুরু হয়ে বিডিং চলে ৭ জুলাই বিকেল ৫টা পর্যন্ত। বিডিংয়ে ২৮১টি যোগ্য ও বিনিয়োগকারীর আবেদন জমা পড়ে। সর্বনিম্ন ২০ টাকা থেকে ৩৪ টাকা দর প্রস্তাব করা হয়। এর মধ্যে একজন বিনিয়োগকারী ২০ টাকা করে আবেদন জমা দিয়েছেন। একজন ২৫ টাকা করে, দুই জন বিনিয়োগকারী ২৭ টাকা, ৪ জন বিনিয়োগকারী ৩২ টাকা, ১০ জন বিনিয়োগকারী ৩৩ টাকা এবং ২৬৩টি ব্যক্তি ও প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী ৩৪ টাকা আবেদন জমা দিয়েছে।

২৮১ ব্যক্তি ও প্রাতিষ্ঠানিক যোগ্য বিনিয়োগকারী ৫ দিনে ২ কোটি ৪৫ লাখ ৪৫ হাজার ৪০০ শেয়ার কেনার জন্য প্রস্তাব করেছে। যার মূল্য ৮৩ কোটি ৪৫ লাখ ৮৫ হাজার ৬০০ টাকা। যা প্রয়োজনের তুলনায় ৪২৫ দশমিক ৪৬১ শতাংশ বেশি। এই কাট অব প্রাইসের চেয়ে ১০ শতাংশ কম দামে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে শেয়ার বিক্রি করা হবে।

পুঁজিবাজারে কোম্পানিটিকে আনতে ইস্যু ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছে এশিয়ান টাইগার ক্যাপিটাল পার্টনার্স ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড ও ইবিএল ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড।

প্রসপেক্টাস অনুসারে, ২০২১ সালের জুলাই থেকে চলতি বছরের ৩১ মার্চ পর্যন্ত (৯ মাসে) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ২ টাকা ৩৯ পয়সা। গত ৫ বছরে কর পরবর্তী মুনাফার ভারিত গড় হারে শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ২ টাকা ৫১ পয়সা।

আইপিও অনুমোদনের ক্ষেত্রে বিএসইসির দেওয়া শর্ত হচ্ছে, পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্তির আগে নাভানা ফার্মা কোনো লভ্যাংশ ঘোষণা করতে পারবে না।